মহাবিশ্বে ডার্ক ম্যাটার কী?

Sun, Dec 24, 2017 2:29 PM

 মহাবিশ্বে ডার্ক ম্যাটার কী?

বিজ্ঞান ডেস্কঃ

 মহাবিশ্বে ডার্ক ম্যাটার হলো এমন এক ধরণের পদার্থ যেগুলো আমরা টেলিস্কোপের সাহায্য দেখতে পাই না। কারণ কি জানো? এই পদার্থগুলো কোন দৃশ্যমান আলো (visible light) নির্গত করে না। কোন পদার্থ থেকে যখন আলো নির্গত হয়, তখনই আমরা সেগুলো দেখতে পাই। যেহেতু ডার্ক ম্যাটার থেকে টেলিস্কোপে সনাক্ত করার মত কোন আলোই আসে না, তাই পদার্থগুলো আমাদের কাছে অদৃশ্য। 

এখন আপনাদের মাথায় নিশ্চই একটা প্রশ্ন ঘুরছে। যেই পদার্থগুলো আমরা দেখতেই পাই না, সেগুলোর অস্তিত্বের ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা নিশ্চিত হচ্ছেন কিভাবে? বা বিজ্ঞানীরা কিভাবে বুঝতে পারছেন যে এই অদৃশ্য পদার্থগুলোর অস্তিত্ব আছে? আমরা এখন সেই প্রশ্নটির উত্তর জানব। বিষয়টি নিঃসন্দেহে মজার। 

আমরা মহাবিশ্বে যেসব পদার্থ দেখতে পাই, সেগুলোর ভর কিন্তু গাণিতিক হিসেব-নিকেশ করে মেপে ফেলা সম্ভব। কোন বস্তুর ভর কিন্তু আমরা দু’ভাবে মাপতে পারি। একটা পদ্ধতি হচ্ছে- সেই বস্তুটি যে সব পদার্থ দিয়ে গঠিত সেগুলো হিসেব করে আমরা একটা ভর পেতে পারি। যেমন ধরুন- একটা নক্ষত্রের ভর মাপা যাবে সেই নক্ষত্রটির ভেতরে কি পরিমাণ বস্তু আছে, সেসব যোগ করে! ভর মাপার ক্ষেত্রে আরেকটা চমৎকার পদ্ধতি হচ্ছে- অন্যান্য বস্তুর ওপর সেই বস্তুটির প্রভাব বা মহাকর্ষ বল কেমন সেটি বের করে। সাধারণত অধিক ভরসম্পন্ন বস্তুর প্রভাব আশে-পাশের অন্য ভরসম্পন্ন বস্তুর ওপর খুব প্রবল হয়। আবার কম ভরসম্পন্ন বস্তুর প্রভাব আশে-পাশের অন্য জিনিসের ওপর হয় খুব কম। আপনার ভর যত বেশি হবে আপনার ক্ষমতাও তত বেশি হবে। এই দু’টি পদ্ধতি প্রায় সময়ই মোটামুটি কাজ করে। একটা নক্ষত্র যে পরিমাণ পদার্থ দিয়ে গঠিত হয়, তার উপরই নির্ভর করে যে সে আশেপাশের বস্তুগুলোর উপর কি পরিমাণ প্রভাব বিস্তার করবে। কিন্তু, কখনো কখনো সেটা হয় না। 

মহাবিশ্বে এমন অসংখ্য বস্তু বিজ্ঞানীরা পর্যবেক্ষণ করেছেন যে বস্তুগুলোর দৃশ্যমান পদার্থের পরিমাণ খুব কম, কিন্তু সেই বস্তুগুলো আশেপাশের অন্যান্য জিনিসের উপর প্রচণ্ড প্রভাব বিস্তার করে আছে! মানে, সেই পদার্থগুলোর দৃশ্যমান গ্যাস, ধূলিকনা প্রভৃতি যোগ করে আমরা যে পরিমাণ ভর বের করতে পারছি; আশেপাশের অন্যান্য বস্তুর উপর তাদের প্রভাব হিসেব করলে ভর দাঁড়ায় আরো বেশি! 

মহাশূন্যের এই নক্ষত্র বা গ্যালাক্সিদের বেলাতেও তাই। যেহেতু, এই বস্তুগুলোর দৃশ্যমান ভর অনেক কম, কিন্তু অন্যান্য বস্তুর উপর তাদের মহাকর্ষ বল অকল্পনীয়- তাহলে নিশ্চই এই বিপুল পরিমাণ ভর আমাদের কাছে অদৃশ্য! আর এই অদৃশ্য বস্তুর নাম দেয়া হয়েছে ডার্ক ম্যাটার! মহাবিশ্বের সব গ্যালাক্সির ভর মাপতে গিয়েই এরকম সমস্যায় পড়েছেন বিজ্ঞানীরা। দেখা যাচ্ছে, দৃশ্যমান নক্ষত্রদের পরিমাণ হিসেব করলে ভর দাঁড়ায় একরকম, আবার গ্যালাক্সিটির মহাকর্ষ বলের ক্ষমতা এবং অন্যান্য বস্তুর সঙ্গে তার ইন্টার-গ্র্যাভিটেশনাল ফোর্স হিসেবে করলে ভর দাঁড়ায় তার চেয়েও অনেক অনেক গুণ বেশি! গ্যালাক্সিদের গুচ্ছ বা অনেকগুলো গ্যালাক্সির সমাবেশের ক্ষেত্রেও সেটা সত্যি। সব মিলিয়ে বলা যায়, পুরো মহাবিশ্বেই অকল্পনীয় পরিমাণ ভর আমাদের দৃষ্টিগোচর হয় না। তাই এগুলো হচ্ছে ডার্ক ম্যাটার।


সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
উপরে যান