কোন ধরণের উস্কানিতে পা না দিতে দলের নেতা-কর্মিদের প্রতি নির্দেশ কাদেরের

Tue, Feb 6, 2018 7:19 PM

কোন ধরণের উস্কানিতে পা না দিতে দলের নেতা-কর্মিদের প্রতি নির্দেশ কাদেরের
খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপির কোনো ধরনের উস্কানিতে পা না দিতে দলের নেতা-কর্মীদের সতর্ক করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

রায়ের দিন বৃহস্পতিবার আওয়ামী লীগ কোনো কর্মসূচি না রাখলেও সহযোগী বিভিন্ন সংগঠনের নেতাদের রাজপথে থাকার ঘোষণার প্রেক্ষাপটে মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই সতর্কবার্তা দেন তিনি।

ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সম্পাদকমণ্ডলী এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাদের যৌথ সভার শেষে সংবাদ সম্মেলনে আসেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, “কোনো ধরনের উসকানি না দেওয়ার জন্য নেতাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

“আমরা ক্ষমতায় আছি, আমরা গায়ে পড়ে কেন অশান্তি ডেকে আনব? ক্ষমতাসীন দল গায়ে পড়ে কেন দেশের স্থিতি, শৃঙ্খলা নষ্ট করবে? দেশ তো শান্তিতে চলছে, আমরা কেন অশান্তি ডেকে আনব?” 

এসএসসি পরীক্ষার মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায় হচ্ছে বৃহস্পতিবার। সম্প্রতি আদালতে হাজিরা দিয়ে ফেরার পথে খালেদা জিয়ার বহর থেকে পুলিশের উপর হামলা এবং রায় নিয়ে দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি বক্তব্যে জনগণের মধ্যে উদ্বেগ রয়েছে।

ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, “তারা (বিএনপি) যদি উস্কানি দেয় এবং হাই কোর্টের সামনে প্রিজন ভ্যানে হামলার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়, তাহলে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা পরিস্থিতি মোকাবেলা করবে।”

‘প্রয়োজনে জনগণের জান-মাল নিরাপত্তা রক্ষায়’ আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশে থাকবে বলে জানান তিনি।

মন্ত্রী কাদের বলেন, বিএনপি ঢাকা ও চট্টগ্রামে বৃহস্পতিবার নাশকতার আশ্রয় নিতে পারে বলে ‘পুলিশের কাছে তথ্য আছে’।

এই মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ‘সাজানো রায়’ দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে বিএনপির অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন তিনি। 

“খালেদা জিয়ার মামলার রায় কী হবে- তার সঙ্গে সরকারের কোনো প্রকারের সংশ্লিষ্টতা নেই।

“আমরা কেন হস্তক্ষেপ করব? খালেদা জিয়া আমাদের শত্রু না, বিএনপি আমাদের শত্রু না। কিন্তু বিএনপি আমাদের শত্রু ভাবে। আমরা তাদের প্রতিপক্ষ ভাবি এবং প্রথম থেকেই তারা আমাদের সঙ্গে শত্রুতা করে আসছে। শত্রুতা যদি না করত, বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্যে তাদের প্রতিষ্ঠাতা থাকত না।”

 সংবাদ সম্মেলনে একাদশ সংসদ নির্বাচন ঘিরে দলের প্রস্তুতির কথাও জানান কাদের।

তিনি বলেন, তফসিল ঘোষণার আগ পর্যন্ত দলের চারজন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং আটজন সাংগঠনিক সম্পাদকের নেতৃত্বে সারা দেশে সাংগঠনিক সফর করবে আওয়ামী লীগ।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ, দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, উপ দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপ প্রচার আমিনুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।


সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
উপরে যান