রক্তপাতহীন ৮ ফেব্রুয়ারি এবং কিছু পর্যবেক্ষণ

Fri, Feb 9, 2018 7:30 PM

রক্তপাতহীন ৮ ফেব্রুয়ারি এবং কিছু পর্যবেক্ষণ
  • আবু নঈম মুহম্মদঃ

খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গণে যে উত্তাপ দেখা দিয়েছিলো, তা এখন অনেকটাই প্রশমিত। এর আগে সব মহলে এক ধরণের চাপা উদ্বেগ এবং উৎকন্ঠা বিরাজ করছিলো যে- কি হয়, কি হয়?  জনমনে আশঙ্কা ছিলো এদিন বিএনপি তাদের এতোদিনের পুঞ্জিভূত ক্ষোভ উগরে দিয়ে সহিংসতার পথ বেছে নিবে। তাদের মিত্র দল জামাত-শিবির মাঠে নামবে এবং ধ্বংশলীলা চালাবে, ঘোলা পানিতে মাছ শিকারে নামবে জেমবির মতো উগ্র মতাদর্শীরা। কিন্তু সরকারের নজিরবিহিন নিরাপত্তা আয়োজনে সব ভেস্তে গেছে।

বিএনপির একাংশ মনে করেছিলো খালেদা জিয়ার প্রতি তার সমর্থকদের অন্ধ ভালোবাসা আছে। খালেদা জিয়ার জেল, জরিমানা হলে তারা সবাই ঘর থেকে বেবিয়ে আসবে এবং গণবিস্ফোরণ ঘটবে। কিন্তু আদতে তা হয়নি। যারা খালেদাকে বুঝিয়ে শুনিয়ে আদালতে পাঠিয়েছে, তারা এখন আঙুল কামড়াচ্ছে।

সবচেয়ে অবাক করার মতো বিষয় হলো, এতো বড়ো একটা ঘটনা ঘটে গেলো, অথচ বিএনপি অন্ততঃ একদিন কিংবা আধা বেলা হরতাল পর্যন্ত ডাকতে পারেনি।  এর কারণ হিসেবে কেন্দ্রীয় নেতাদের গ্রেপ্তার আতঙ্ককে দায়ি করেছেন অনেকেই। এই সরকারের আমলে ফখরুল, রিজভী, মওদুদ, আব্বাস, এর মতো নেতাদের ইতিমধ্যেই কয়েকবার জেলের অভিজ্ঞতা হয়েছে, তারা পুণরায় জেলে যেতে চাননা। এর দুটি কারণ, এক. জেলে বন্দী না থেকে বাইরের আলো হাওয়া তাদের এই মুহুর্তে বেশী পছন্দ, অন্যদিকে দলে নেতৃত্ব শূণ্যতার ভয়।  হরতাল সংগঠনের জন্যে প্রচুর অর্থ এবং জনবল লাগে, বিএনপির এখন সেটা নেই। দলের অনেক নেতা কর্মী চাননা খামোকা পুলিশের হাতে মার খেতে কিংবা জেলের ভাত খেতে। হরতাল-ধর্মঘট ডেকে যদি সেটা সফল করা না যায়, তাহলে এক ধরণের ব্যর্থতা হবে, অন্যদিকে অহেতুক কিছু লোক আটক হবে।

অবস্থাটাদৃষ্টে রাজনৈতিক বিচারে শেখ হাসিনার সাহসী ভূমিকার জয় হয়েছে বলেই ধরে নেওয়া যেতে পারে। খালেদা জিয়া জেলে গেলো, তাতে বিচ্ছিন্ন কিছু সংঘর্ষের ঘটনা ছাড়া তেমন বড়ো কিছু ঘটেনি। কয়েকজন আহতের বাইরে অন্তত কারও মৃত্যুর সংবাদ আমরা পাইনি। এটা অনেক বড় স্বস্তির বিষয়। বিএনপি ধ্বংশাত্মক কর্মসূচী না দিয়ে প্রজ্ঞার পরিচয় দিয়েছে, কেননা মুক্ত খালেদার চাইতে বন্দি খালেদা অনেক বেশী জনপ্রিয়।

বিএনপির কর্মসূচী যাই থাকুকনা কেন, সেটা কার্যকর করতেনা দিয়ে বর্তমান সরকার সফলতার পরিচয় দিয়েছে। সাপ মরলো, কিন্তু লাঠিটি ভাঙ্গলোনা।

(এটি লেখকের নিজস্ব মতামত, এটি কোনোভাবেই পত্রিকার সম্পাদকীয় নীতির প্রতিফঃলন নয়)


সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
উপরে যান